যে ২০টি কারণে WordPress দ্বারা ওয়েবসাইট তৈরি করবেন – শেষ পর্ব

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় কন্ট্যান্ট ম্যানেজমেন্ট প্লাটফর্ম ওয়ার্ডপ্রেস। এই প্লাটফর্মের খুটিনাটি বিষয় গুলো নিয়েই আমাদের এই সিরিজ। যে ২০ টি কারণে WordPress দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরী করবেন সিরিজের এটি শেষ পর্ব।

প্রথম পর্ব দেখতে ক্লিক করুন

দ্বিতীয় পর্ব দেখতে ক্লিক করুন

তৃতীয় পর্ব দেখতে ক্লিক করুন


১৬। নিজের মত করুন ওয়েবসাইটের ডিইজাইন 

অনেকেই মনে করেন ওয়ার্ডপ্রেসে নিজের মত করে ওয়েবসাইট ডিজাইন করা যায় না। এটি সম্পুর্ন ভুল ধারনা। ওয়ার্ডপ্রেসের রয়েছে বিশাল পেইজ বিল্ডিং প্লাগইনস এর ভান্ডার যা আপনাকে আপনার ওইয়েবসাইটকে কোনো কোডিং ছাড়াই কাস্টমাইজড লুক দিতে সাহায্য করবে।

১৭। তৈরি করুন প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ ওয়েবসাইট 

আপনি যদি ট্রেইনার বা প্রফেশনাল হয়ে থাকেন এবং আপনি যদি অনলাইন কোর্স বা টিউটোরিয়ালস আপলোড করতে চান যা শুধুমাত্র রেজিটারড ইউজাররাই দেখতে পারবেন এমন ক্ষেত্রে  Paid Memberships এবং Magic Members এর মত ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইন এর মাধ্যমে কোনো কোডিং ছাড়াই খুব সহজেই প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন।

 

 

১৮। ইম্প্রুভড মার্কেটিং সল্যুশন

নিউজলেটারে সাইনআপ বৃদ্ধি করতে বা ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বাড়াতে ওয়ার্ডপ্রেসের জুড়ি নেই। SumoMe এর মত অনলাইন মার্কেটিং সার্ভিসের মাধ্যেমেই ওয়েবসাইটে পপআপ ম্যাসেজ দেখানো, ইমেইল আইডি কালেক্ট করা, সোস্যাল নেটওয়ার্ক শেয়ারিং বাটন ইন্সটল করতে পারেন। তাছাড়া JetPack ব্যাবহার করে অটোমেটিকালি Facebook, Twitter, Tumblr এবং Google+ এ শেয়ার করা যায়।

১৯। ঝামেলাহীন A/B Testing

A/B testing, বা split-testing সব বিজনেস মার্কেটিং প্ল্যানের অবিচ্ছেদ্দ অংশ যা কনভার্শন রেইট বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।  Unbounce এবং Optimizely এর মত বিভিন্ন প্লাগইন ব্যাবহার করে সহজেই ল্যান্ডিং পেইজ তৈরি করে নিজেই স্প্লিট টেস্ট করতে পারেন।

২০। Future-Proof

ওয়ার্ডপ্রেস একটি Future-Proof প্লাটফর্ম। ভবিষ্যতেও এই প্লাটফর্মে তৈরি ওয়েবসাইট রিলেভেন্ট এবং আপ টু ডেইট থাকবে।

ওয়ার্ডপ্রেস একটি অপার সম্ভাবনার জগত। ওয়েবডেভেলপার হায়ার করে, অনেক অর্থ খরচ কর ওয়েবসাইট  তৈরি করার আগে একবার ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাবহার করে দেখুন। ওয়ার্ডপ্রেসের জাদু আপনাকে অবাক করবেই।

Your Comments
+